সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন

সাতকানিয়ায় পৃথক অভিযানে বিশ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার:গ্রেপ্তার-৪

শহীদুল ইসলাম বাবর
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২২ জুন, ২০২১
  • ৩৬৭

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া থানা পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে ২০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে। এ সময় ইয়াবা পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে ১ নারীসহ চারজনকে আটক করা হয়। থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।মঙ্গলবার ভোর রাতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের তেমোহনী ও একই সড়কের মৌলভীর দোকান এলাকায় এই পৃথক অভিযান চলে। অভিযানে ইয়াবা পাচারকাজে ব্যবহৃত ১টি সাদা রঙের এক্স-নোহা ও ১টি মিনি পিকআপ জব্দ করা হয়।পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই জাকির হোসেন মঙ্গলবার ভোররাত আনুমানিক তিনটার সময় কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখে ছুটে চলা সাদা রঙের একটি এক্স নোহাতে তল্লাসী চালিয়ে চেচিসের সাথে চেম্বার লাগিয়ে বিশেষ কায়দায় পাচারের সময় ১৭ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। সাথে গ্রেপ্তার করা হয়, পটিয়া উপজেলার বানিয়া পাড়ার বাবুল চৌধুরীর ছেলে মোহাম্মদ চৌধুরী (২৯), টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়ার  মনির আহমদের পুত্র নুরুল কবির (২৪) ও একই উপজেলার আলিয়াবাদ এলাকার মৃত মোহাম্মদ ফোরকানের স্ত্রী দিলুয়ারা বেগম (৩৫)।এসময় অপর ইয়াবা কারবারী টেকনাফের আলিয়াবাদের মোহাম্মদ জুবায়েরের পুত্র মো. মানিক(৩২) পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে থানা সংশ্লিষ্ট আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অপরদিকে এ অভিযানের এক ঘন্টা আগে একই সড়কে অভিযান চালিয়ে থানার এএসআই মো. মারুফ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে মৌলভীর দোকান এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি মিনি পিকআপের স্টিয়ারিং এর নিচে বিশেষ কায়দায় রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। এবং ইয়াবা পাচারে অভিযোগে কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম উপজেলার  সিংরাই ইউনিয়নের জাকির হোসেনের পুত্র আবুল কালাম আজাদ প্রকাশ জিসান ( ২১ কে গ্রেপ্তার করে। থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন বলেন, মাদক পাচার প্রতিরোধে পুলিশ সচেষ্ট রয়েছে। তারই অংশ হিসেবে থানা পুলিশ পৃথক অভিযান ২০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার ছাড়াও ইয়াবা কারবারে জড়িত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। ইয়াবা পাচারকাজে ব্যবহৃত এক্স-নোহা ও মিনি পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Share This Post

আরও পড়ুন