মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:০৭ পূর্বাহ্ন

শাহরুখের বিরুদ্ধে মিথ্যে আশা দেওয়ার অভিযোগ

বিনোদন ডেস্ক
  • প্রকাশ : শুক্রবার, ২৬ জুন, ২০২০
  • ৬৪

অভিনেতা সুশান্ত সিংয়ের আত্মহত্যার পর করণ জোহর, সালমান খান, সঞ্জয়লীলা বানসালিসহ আরও কয়েকজনের তারকার দিকে উঠেছে অভিযোগের আঙুল।

এবার সেই তালিকায় যুক্ত হয়েছে শাহরুখ খানের নামটি। করণ জোহর ও বলিউডের এই তারকার বিরুদ্ধে মিথ্যে আশা দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন প্রয়াত অভিনেতা ইন্দর কুমারের স্ত্রী পল্লবী।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন পল্লবী।

করণ জোহরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে পল্লবী তার ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন- “ওই সময়টাতেও স্বজনপ্রীতি নিয়ে চর্চা চলছিলো। ঠিক এখন যেমনটি হচ্ছে, সুশান্ত সিংয়ের আত্মহত্যার পর। প্রয়াত এই তারকার মতো আমার স্বামী ইন্দর কুমারও তার নিজের যোগ্যতায় তারকা বনেছিলেন। আমার মনে আছে, তার মৃত্যুর আগে তিনি কাজের জন্য দু’জন বড় তারকার কাছে গিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে একজন ছিলেন করণ জোহর। আমিও ছিলাম সেসময়। দুই ঘণ্টা তার ভ্যানিটি ভ্যানের সামনে অপেক্ষা করেছিলাম। পরে তার ম্যানেজার গরিমা এসে জানান, করণ খুব ব্যস্ত রয়েছেন। কিন্তু তবুও আমরা তার জন্য অপেক্ষা করেছি। বাহিরে আসার পর তিনি ইন্দরকে বলেন, গরিমার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে। ইন্দর টানা ১৫ দিন তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলো। একদিন ফোন দেওয়ার পর গরিমা বলেন, এই মুহূর্তে কোন কাজ নেই। এরপর ইন্দরের নাম্বারটি ব্লক করে দেওয়া হয়।”
স্বামী ইন্দর কুমারের সঙ্গে পল্লবী, শাহরুখ খান ও করণ জোহর

শাহরুখ খানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ এনে পল্লবী লিখেছেন- “করণ জোহরের মতো একই আচরণ করেছেন সুপারস্টার শাহরুখ খানও। ‘জিরো’ ছবির সেটে কিং খানের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন ইন্দর। সেসময় তিনি তাকে বলেছিলেন, এই মুহূর্তে কোন কাজ নেই ইন্দর যেনো এক সপ্তাহ পড়ে দেখা করে এবং তার ম্যানেজার পূজার সঙ্গে যোগাযোগ রাখে। করণের ম্যানেজার গরিমার মতো পূজাও একই কাজ করেছেন। কিন্তু আপনারা কী কেউ বিশ্বাস করতে পারবেন যে এটা বড় দুটি প্রোডাকশন হাউসে কোন কাজ ছিলো না। আর করণ তো প্রকাশ্যেই বলেন, তিনি তারকাদের ছাড়া কাজ করেন না। যাই হোক আমার স্বামীও তারকা ছিলেন। তার কাজের মধ্যে মানুষ আজও তাকে মনে রেখেছেন।”

স্বজনপ্রীতির বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করার আহ্বান জানিয়ে পল্লবী বলেন, “প্রতিভাবান তারকাদের সাহায্য করতে তাদের সমস্যাটা কোথায়? কি নিয়ে ভয় পায় তারা? নাকি আমরা বলবো তারা ভালো মানুষ নন। শুধু সকলের সামনে ভালো থাকার অভিনয় করেন। স্বজনপ্রীতি বন্ধ করা দরকার। এর জন্য মানুষ মারা যাচ্ছে। সরকারের উচিত এর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা।”

১৯৯৬ সালে ‘মাসুম’ ছবির মধ্য দিয়ে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে পা রেখেছিলেন ইন্দর কুমার। ৯০ দশকের জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যে তিনিও ছিলেন একজন। ২০১৭ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এই তারকা।

Share This Post

আরও পড়ুন