বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

কক্সবাজার ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষনায় জয়ের প্রশ্ন: জবাব দিবে কে?

শহীদুল ইসলাম বাবর
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ৮২

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত কমিটি নিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন উত্থাপন করেছে সদ্য সাবেক হওয়া কক্সবাজার জেলা সভাপতি ইসতিয়াক আহমেদ জয়। তার পেজবুক পেইজে স্ট্যাটাস দিয়ে এসব প্রশ্ন উত্থাপন করেন তিনি।তার এসব প্রশ্নে তোলপাড় চলছে সর্বত্র নিম্নে তার স্ট্যাটাসটি হুবহু প্রকাশ করা হলো ।

আমাদের কয়েকটি যুক্তিসঙ্গত কয়েকটি প্রশ্ন রয়েছে,

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত কমিটি নিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে আমাদের কয়েকটি যুক্তিসঙ্গত কয়েকটি প্রশ্ন রয়েছে, এ প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তর জানার অধিকার নিশ্চয়ই আমাদের সকলের আছে!

১) কেন্দ্র থেকে ঘোষিত কমিটিতে যে দুজনকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে, তারা কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এখন পড়াশোনা করছে? তাদের কি ছাত্রত্ব আছে?

[ আমাদের জানা মতে, এই দুজনের কারওই ছাত্রত্ব নাই। আর ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, যাদের ছাত্রত্ব নাই তারা কেউই ছাত্রলীগের নেতা হতে পারবে না। নাকি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ গঠনতন্ত্রের বাইরে গিয়ে স্বেচ্ছাচারী যেকোন সিদ্ধান্ত নিতে পারে? ]

২) কেন্দ্র থেকে ঘোষিত কমিটিতে যে দুজনকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে, তাদের কারওই বয়স নাই। বয়স না থাকা কেউকে কি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ গঠনতন্ত্রের বাইরে গিয়ে স্বৈরাচারী আচরণে নেতা বানাতে পারে?

[ সাদ্দাম হোসেনের ভোটার আইডি নং- ২২১৫৬৪০০০০৩৫
মারুফ আদনানের ভোটার আইডি নং- ১৯৯০২২২২৪০৩০০০০০৮ ]

৩) কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ যাকে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি করেছেন, তার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের এক কর্মীকে গুলি করে হত্যাচেষ্টা মামলার আসামী। এরকম কোন আসামীকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা বানাতে পারে কি?

মামলা নাম্বার — ৩৯/১৪১২০১৭

৪) কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ যাকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেছেন, তার বিরুদ্ধে মটর সাইকেল চুরির সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণের অভিযোগ রয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে জানতে চাই, এরকম অভিযুক্ত কেউকে কি ছাত্রলীগের নেতা বানাতে পারেন?

৫) কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও তারা সম্মেলন করতে রাজি হয় নাই। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সম্মেলন করতে অনিচ্ছা ছিলো কেন?

অবশেষে একটা কথাই বলতে চাই, ছাত্রলীগ একটা আবেগের নাম, এই আবেগ নিয়ে স্বেচ্ছাচারী আচরণ করা বন্ধ করতে হবে। সংগঠনের মঙ্গলের জন্য পকেট কমিটি দেওয়া বন্ধ করতে হবে।

Share This Post

আরও পড়ুন